আমি একমাত্র আল্লাহ ছাড়া কাউকে পরোয়া করি না: এরদোগান

তুরস্কের আসন্ন গণভোটে ‘হ্যাঁ’র পক্ষে সমর্থন দেয়ার মাধ্যমে নাৎসীবাদের উত্তরাধিকারীদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত জবাব দেয়ার জন্য ইউরোপে বসবাসকারী তুর্কি ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রেসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান।

সোমবার কৃষ্ণ সাগর তীরবর্তী তার পরিবারিক শহর ‘রেইজে’ এক বিশাল সমাবেশে এরদোগান এ আহ্বান জানান। এরদোগান বলেন, ‘তুরস্কের ‘সম্মান ও গৌরব’ রক্ষার্থে আমরা তিন-চারটি ইউরোপীয় ফ্যাসিস্টদের মেনে নিব না।’ আগামী ১৬ এপ্রিল দেশটির সংবিধান পরিবর্তনের জন্য গণভোটের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

সমাবেশে মুসলিম সংহতি সম্পর্কে এরদোগান বলেন, ‘ইউরোপীয় ইউনিয়ন এই মুসলিম সংহতিকে পছন্দ করবে না। এসব দেশের নেতারা যা বলে আমি কখনো তার পরোয়া করি না। আমি একমাত্র আল্লাহ যা বলেছেন তারই পরোয়ানা করি।’

ইউরোপ প্রবাসী ভোটারদের ‘ভাই ও বোন’ সম্বন্ধ করে তিনি ফ্যাসিবাদী অত্যাচার ও নাৎসীবাদের উত্তরাধিকারীদের উপযুক্ত জবাব দিতে তাদের প্রতি আহ্বান জানান। গণভোটের পক্ষে ভোট দেওয়ার জন্য ইউরোপীয় শহরগুলোতে বসবাসরত প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে তুর্কি মন্ত্রীদের সমাবেশের অনুমতি দিতে অস্বীকার করায় ইউরোপীয় নেতাদের তীব্র সমালোচনা করেন এরদোগান।

এছাড়াও, ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলো তুরস্কের বিরুদ্ধে একটি নতুন ‘ক্রুসেডার জোট’ গঠন করেছে অভিযোগ করেন তিনি। এরদোগান বলেন, ‘ইইউ দেশগুলোর নেতারা ভ্যাটিকান গিয়ে অত্যন্ত বিনয়ীভঙ্গিতে পোপের বক্তব্য শুনেন। এখনো কি আপনারা বুঝতেছেন না কেন ৫৪ বছর ধরে তুরস্ককে গ্রহণ করছে না ইউরোপীয় ইউনিয়ন? অবস্থা বেশ জোড়ালো এবং স্পষ্ট, এটা হচ্ছে একটি ক্রুসেডার জোট। কিন্তু ১৬ এপ্রিল হচ্ছে সকল ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত মূল্যায়নের দিন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *