সৌদি আরবের গৃহযুদ্ধ -বিশাল ধোঁয়া ও কেয়ামতের আলামত।

সৌদি রাজ পরিবারের সদস্যরা তিনভাগে বিভক্ত হয়ে গেছে। আর এই তিনটি গ্রুপ তিনজন প্রিন্সকে কেন্দ্র করে বিভক্ত হয়েছে। তারা হলেনঃ

• ১. মুকরিন বিন আব্দুল আজিজ ।
• ২. মুহাম্মদ বিন নায়েফ।
• ৩. মুহাম্মদ বিন সালমান।

হযরত ছওবান (রাঃ) থেকে বর্ণিত, আল্লাহর রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন,
“তোমাদের ধনভাণ্ডারের (রাজত্বের জন্য) নিকট তিনজন বাদশাহ এর সন্তান যুদ্ধ করতে থাকবে। কিন্তু ধনভাণ্ডার (রাজত্ব) তাদের একজনেরও হস্তগত হবে না। তারপর পূর্ব দিক খোরাসান(আফগানিস্তান) থেকে কতগুলো কালো পতাকাবাকী দল আত্মপ্রকাশ করবে। তারা তোমাদের সাথে এমন ঘোরতর লড়াই লড়বে, যেমনটি কোন সম্প্রদায় তাদের সঙ্গে লড়েনি।”

বর্ণনাকারী বলেন, তারপর নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আরও একটি বিষয় উল্লেখ করে বললেন,
“তারপর আল্লাহর খলীফা মাহদির আবির্ভাব ঘটবে। তোমরা যখনই তাঁকে দেখবে, তাঁর হাতে বাইয়াত নেবে। যদি এজন্য তোমাদেরকে বরফের উপর দিয়ে হামাগুড়ি খেয়ে যেতে হয়, তবুও যাবে। সে হবে আল্লাহর খলীফা মাহদি।”
📚[সুনানে ইবনে মাজা; খণ্ডঃ- ২, পৃষ্ঠাঃ- ১৩৬৭। মুসতাদরাকে হাকেম, খণ্ডঃ- ৪, পৃষ্ঠা ৫১০]

আর এই গৃহযুদ্ধের পর ইমাম মাহদী (আঃ) এর আগমন ঘটবে। তাই সকল সচেতন মুসলমানদের এই বিষয়ে নজর রাখা দরকার।◾
আল্লাহু আ’লাম।

এবার আসি অন্য কথায়-

⭕কেয়ামতের আলামত বিশাল একটি ধোঁয়ার আগমণ বনাম বর্তমান এস্টেরয়েড 1998 OR 2.

কিয়ামতের বড় আলামত কি 2020 সালেই প্রকাশিত হবে?

কিয়ামতের অন্যতম বড় আলামত হচ্ছে আখেরী যামানায় কিয়ামতের সন্নিকটবর্তী সময়ে বিশাল আকারের একটি ধোঁয়া বের হয়ে আকাশ এবং যমীনের মধ্যবর্তী খালি জায়গা পূর্ণ করে ফেলবে। এই ধোঁয়া মুমিন ব্যক্তিদেরকে সামান্য একটু সর্দি-কাশি ও জ্বরে আক্রান্ত করে দিবে। কাফেরদের শরীরের ভিতরে প্রচন্ডভাবে প্রবেশ করবে। ফলে তাদের শরীর ফুলে যাবে এবং শরীরের প্রতিটি ছিদ্র দিয়ে ধোঁয়া বের হবে। এটি তাদের জন্য একটি যন্ত্রনাদায়ক আযাবে পরিণত হবে।

আপনি কি জানেন? এবছর ২৯ এপ্রিল একটি ৪ কিলোমিটারের এস্টেরয়েড পৃথিবীর পাশ দিয়ে যাবে।এস্টেরয়েড টির নাম 1998 OR2.(গুগলে সার্চ করে দেখতে পারেন)।

বিজ্ঞানীরা আশংকা করছে এটি যদি পৃথিবীকে আঘাত করে তাহলে হিউম্যান সিভিলাইজেশন ধ্বংস হয়ে যাবে।
এখন কথা হলো, হাদিসে পাওয়া যায় যে, কিয়ামতের পূর্বে রমজান মাসে এক বিকট আওয়াজ হবে।এতে ৭০ হাজার মানুষ বধির হবে,৭০ হাজার বোবা হবে এবং ৭০ হাজার মানুষ অজ্ঞান হয়ে যাবে। এটা ইমাম মাহদী আত্মপ্রকাশের ও আলামত। ভাববার বিষয় হলো, ২৯ এপ্রিল কিন্তু রমজান মাস পড়ে। জানিনা এটা সেই রমজান মাস কিনা।

এস্টেরয়েডটি যদি আকাশে বিস্ফোরিত হয় তাহলে বিকট শব্দ হবে। আবার সূরা- দোখানের সেই ধোয়া ও সৃষ্টি হতে পারে।

⭕ তালেবানরা স্বাধীন ইসলামী রাষ্ট্র
গঠন করতে যাচ্ছে, ইমাম মাহদীকে বায়াত দিবে এই আফগান খোরাসানের কালো পতাকাবাহী দল

⭕ ইন্ডিয়া যে পথে আগাচ্ছে তাতে হাদীসে বর্ণিত মুসলিম হিন্দুর চূড়ান্ত মহাযুদ্ধ গজওয়ায়ে হিন্দ অতি নিকটে মনে হচ্ছে।

⭕ইমাম মাহদী মক্কায় যে বছর বায়াত নেবেন সে বছর মক্কায় মানুষ কম থাকবে। করোনার কারণে এ বছর সে সম্ভাবনাও প্রবল।

জানিনা দুনিয়া কোন দিকে আগাচ্ছে। আল্লাহই জানেন সামনে কি হবে। সময় থাকতে তওবা করে ঈমান আমল বাড়িয়ে নিজেদেরকে ইমাম মাহাদীর দলে যোগ দেয়ার জন্য প্রস্তুতি নেয়া উচিত।
.
আল্লাহু আ’লাম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *